Thursday, January 18, 2018

মেয়ে পটানোর অভিজ্ঞতালব্ধ উপায়সমুহ(পরিক্ষীত) love tips

মেয়ে পটানোর অভিজ্ঞতালব্ধ উপায়সমুহ(পরিক্ষীত) love tips


মেয়ে পটানোর অভিজ্ঞতালব্ধ উপায়সমুহ(পরিক্ষীত)
আমার এক বন্ধুর নাম এ। এ চৌধুরী। সে এখন ফর্মে আছে। দুর্দান্ত ফর্ম যাকে বলে। মেয়ে পটানোতে তার যোগ্যতা এখন আমাদের সবার কাছেই স্বীকৃত। হোস্টেলে থাকার সময় ভূতের ভয়ে একা রুমে থাকতে না পারলেও বর্তমানে সে এক মেয়ের সাথে মোবাইলে কথা বলে আর অন্য মেয়েকে এস এম এসচ্যাট করে।




তার বর্তমান অবস্থার জন্য যে জিনিসটা সবচেয়ে দায়ী সেটা হচ্ছে ফেসবুক। ফেসবুকের কল্যাণে তার এখন ৫/৬ (সঠিক সংখ্যা অজানা) টা GF সামলাতে হয়। তার প্রায় বছরখানেক আগ থেকেই আমার ফেসবুক একাউন্টথাকলেও এই ব্যাপারে আমার ফর্ম খুব খারাপ। খারাপ ফর্ম থাকলে ক্রিকেটাররা যেমন অন্যজনের কাছ থেকে টিপস নেন ঠিক তেমনি আমি চৌধুরী সাহেবের কাছে টিপস চাইলাম। যে টিপসগুলো চৌধুরী সাহেব দিলেন তা মোটামোটি এরকম:


১। প্রথমে ঠিক করতে হবে মেয়েটিকে। (এটাই আসল)একটা মেয়ে ঠিক করলে হবে না। কারণ আপনি নিশ্চিত না পারবেন কিনা। তাই ভাল সংখ্যক মেয়ে নির্বাচন করতে হবে। ভাল সংখ্যা টা কত হবে সেটা আপনার বিবেচনা।

২। FB তে মেসেজ দিতে হবে। খুব সাধারন মেসেজ। হ্যালো হাউ আর ইউটাইপ। এটাকে বলা হয় প্রাথমিক পদক্ষেপ।

৩। সবার রিপ্লাই প্রত্যাশা করলে ভূল করবেন। সবার মধ্যে তিনভাগের এক ভাগ রিপ্লাই করবে। এখন আপনাকে এই মেসেজ গেমচালিয়ে যেতে হবে। মেসেজ গেম মানে মেসেজ পালটা মেসেজ।

৪। মেসেজ ছোট ছোট হবে। প্রশ্নবোধক যেন হয় খেয়াল রাখবেন। কারণ প্রশ্নবোধক নাহলে উত্তর পাওয়ার সভাবনা কমে যায়। এক্ষেত্রে পড়ালেখার ব্যাপারে খোজখবর নিবেন, হাবিজাবি কোশ্চেন করতে পারেন।

৫। হাবিজাবি কোশ্চেন মানে আউল ফাউল কোশ্চেন না। মনে রাখবেন হাবিজাবি এবং আউল ফাউল দুইটা দুই জিনিস।

মেয়েদের সোনা

৬। নিজেরে লুল হিসেবে উপস্থাপন করবেন না। মেয়েটা যদি টের পেয়ে যায় আপনি লুল তাইলে আপনে শেষ। নির্ঘাত শেষ। এ ব্যাপারে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকবেন।

৭। সজ্ঞানে অথবা অজ্ঞানে কখনো ফোন নাম্বার চাইবেন না। ফোন নাম্বার চাইছেন তো ৯৫ পার্সেন্ট সম্ভাবনা আপনি শেষ। কথা চালিয়ে যান মেসেজে।

৮। নিজেকে ভাল করে উপস্থাপন করুন। মেয়েদের ওয়ালে আজেবাজে পোস্ট করবেন না।

Monday, January 15, 2018

১৭টি উপায় যা জানলে যে কোন মেয়ে প্রেমে পড়বে love tips

১৭টি উপায় যা জানলে যে কোন মেয়ে প্রেমে পড়বে love tips


১০০% যে কোন মেয়ে আপনার প্রেমে পড়ে যাবে! ১৭টি উপায়
মহিলাদের কাছে আকর্ষণীয় হতে গেলে হীনম্মন্যতায় ভুগলে হবে না। নিজের উপরে বিশ্বাস রাখটাই এই খেলার মূলমন্ত্র। আপনার বোধ হতেই পারে মহিলাদের নজর টানায় আপনার বন্ধু অনেকটাই এগিয়ে, কিন্তু, কিছু শর্ত মানলে আপনি এই কর্মে সিদ্ধহস্ত হতে পারেন।

১. মহিলা দেখলেই হামলে পড়বেন না। পার্টি হোক বা পারিবারিকঅনুষ্ঠান অথবা বন্ধুমহল পছন্দের মানুষকে চোখ দিয়ে মাপুন। দেখার চেষ্টা করুন তাঁর নজর কোথায়। পারলে, তাঁর দৃষ্টিপথের আশপাশেই থাকুন। আগ বাড়িয়ে পরিচয় দেওয়ার চেষ্টা করবেন না।

২. নজরে পরিচিত হলে এবার এগোন পরিচয়-পর্বের দিকে। তার দিকে তাকিয়ে হাসুন। আড়চোখে বোঝার চেষ্টা করুন, সে আদৌ আপনাকে খেয়াল করছে কি না। পারলে তার পরিচিত গণ্ডির মধ্যে ঢোকার চেষ্টা করুন। সুযোগ বুঝে হাসিমুখে ‘হাই’ বা ‘হ্যালো’ বলুন। এমন আচরণ করবেন না যে, আপনাকে তাঁর ‘হ্যাংলা’ বলে মনেহয়।

৩. ‘হাই-হ্যালো’-র মধ্যে পরিচয়টা সেরে ফেলুন। জানার চেষ্টা করুন, তার কাজ ও পড়াশোনা নিয়ে। এর বেশি এগোবেন না। যদি, মনে হয় আরও একটু কথা বলা যাচ্ছে, তাহলে কিছু জোকস শেয়ার করুন। হাসির কথা বলুন। বোঝানোর চেষ্টা করুন আপনি একজন কৌতুকপ্রিয় মানুষ।

৪. পরিচয়ের এই পর্বটাকে এগিয়ে নিয়ে চলুন। একবারও বোঝানোর চেষ্টা করবেন না আপনি শুধু তার সঙ্গেই কথা বলতেআগ্রহী। পারলে তার আশপাশে থাকা অন্য মেয়েদের সঙ্গেওপরিচয় করার চেষ্টা করুন।

৫. এবার সুযোগ বুঝেকথার আড়ালে মনের জনের সঙ্গে মোবাইল নম্বরটা এক্সচেঞ্জ করে নিন। জেনে নিন এসএমএস, হোয়াটসঅ্যাপ না সরাসরি মোবাইলে কথা বলা— কোনটা তার বেশি পছন্দ? কোন সময়ে এসএমএস পাঠালে তিনি বিরক্ত হবেন না? সেইসঙ্গে জানুন,মোবাইলে তাকে কোন সময়ে বেশি পাওয়া যেতে পারে। পারলেজানিয়ে দিন, আপনাকে কাজের খাতিরেই সবসময় মোবাইল খোলা রাখতে হয়। দিন হোক বা রাত— যে কোনও সময়েই আপনাকে মোবাইলে পাওয়া যায়।

৬. পছন্দের নারীর ফোন নম্বরটা না হয় জোগাড় করলেন, এবার? পারলে তার অন্য কোনও বান্ধবীদের মোবাইল নম্বরগুলিও সংগ্রহে রাখুন। এরপর পছন্দের নারীর সঙ্গে তার বান্ধবীদেরও মজার মজার হোয়াটস্অ্যাপ মেসেজ পাঠান।

মেয়ে পটানো
মেয়েদের
মেয়ে পটানোর কৌশল
মেয়ে পটানোর সহজ উপায়
মেয়ে পটানোর sms
মেয়ে বশিকরন মন্ত্র
প্রেমের sms
মেয়েরা কি চায়

Friday, December 22, 2017

মেয়ে পটানোর সহজ উপায় love tips

মেয়ে পটানোর সহজ উপায় love tips



মেয়ে পটানো টিপস
মেয়ে পটানো টিপস ২. কথা বলার সময় সরাসরি চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলুন। এতে আপনারসম্পর্কে তার বিরুপ ধারণা হবে না।
মেয়ে পটানো টিপস ৩. সবসময় প্রশংসা করবেন, কারণ সব মেয়েরায় চায় কেউ তার প্রশংসা করুক। প্রশংসা করবেন, আজ তাকে কেমন লাগছে, কোন কাপড়টাই তাকে ভালো লাগছে ইত্যাদি।
মেয়ে পটানো টিপস ৪. সবসময় নিজের উপর আত্মবিশ্বাস রাখবেন। অনেক ছেলেরা আছে যারা মেয়েদের সামনে গেলে, তাদের সাথে কথা বললে ঘেমে ঝোল হয়ে যায়, মেয়েরা এটা মোটেও পছন্দ করে না, আপনাকে ভিতু ভাবতে পারে।
মেয়ে পটানো টিপস ৫. বাচনভঙ্গি ঠিক রেখে পরিমার্জিত ভাবে গুছিয়ে কথা বলার চেষ্টা করবেন।
মেয়ে পটানো টিপস ৬. অনেক ছেলেরা স্মোকিং করাটাকে স্টাইল মনে করে, ভাবে যে এটা মেয়েদের পছন্দের। কিন্তু এটা ভুল, মেয়েরা মোটেও স্মোকারদের পছন্দ করেন না।
মেয়ে পটানো টিপস ৭. শার্টের উপরের বোতাম দুইটা বন্ধ রাখবেন। বুকের লোম দেখানোর স্টাইল সেকালের নায়কেরা করত।
মেয়ে পটানো টিপস ৮. যদিকোন সেলেব্রিটিকে ফলো করতে চান, তাহলে বলব “তাহসান”ভাইকে ফলো করতে পারেন।
মেয়ে পটানো টিপস ৯. রোমান্টিক মুভি(শাহরুখ ভাইয়ের মুভিগুলো), নাটক (তাহসান ভাইয়ের নাটকগুলো) দেখুন ভিতরে রোমান্টিকতা আসবে। সব মেয়েরাই চায় তার প্রিয় মানুষটি একটু রোমান্টিক হোক, একটু দুষ্ট হোক, একটু কেয়ারফুল হোক।
মেয়ে পটানো টিপস ১০. কথার মাঝখানে কখনো রোমান্টিক ডায়লগ দিবেন, একসাথে হাতে হাত রেখে চলবেন, সূর্যাস্ত দেখবেন, একটি কোল্ড ড্রিঙ্কস দুইজনে শেয়ার করবেন ইত্যাদি। ক্যানডেল লাইট ডিনার টা অনেক মেয়েদের পছন্দের।
মেয়ে পটানো টিপস ১১. অনেক মেয়ে আছে যারা গিফট পছন্দ করে, তবে মেয়েদের জন্য সবচেয়ে বড় গিফট হল, বেস্ততার মাঝে আপনি তাকে কতটুকু সময় দিচ্ছেন, কতটুকু তার কেয়ার করছেন। একটি মেয়ে সবসময় চায় তার প্রিয় মানুষটি তাকে সময় দিক, তার পাশে থাকুক।
মেয়ে পটানো টিপস ১২. মাঝে মাঝে কিছু রোমান্টিক মুহূর্ত তাকে গিফট দিন, যেমন বৃষ্টি ভেজা দিন, জোছনার রাত, শেষ ক্লান্ত বিকেলের সূর্যাস্ত । ডায়লগ হতে পারে এমন রোমান্টিক মুহূর্তে/দিনে তোমাকে মিস করছি ভীষণ।
মেয়ে পটানো টিপস ১৩. পরিশেষে একটা কথায় বলব আপনার ভালোবাসার মানুষটিকে বুঝতে শিখুন,তার যেটা অপছন্দ সেটি করা থেকে বিরত থাকুন, মোস্ট আর ইম্পরট্যান্টলি তাকে সময় দিন।

মেয়েদের সোনা
নোটঃ মেয়েদের আজ পর্যন্ত কেউ বুঝতে পারেনি, কত শত কবি কত কাব্য রচনা করে গেছেন, কত শিল্পী গেয়েছেন কত সুরে গান। কবি বলেছেন “মেয়েদের মন আকাশের রঙ”
এত গুণীজনদের ভিড়ে আমি নগণ্য মাত্র। যাই হোক এই ছিল মেয়েদের সম্পর্কে আমার ছোট্ট গবেষণার ফল।

Wednesday, December 6, 2017

মেয়ে বশীকরন স্কুলের মেয়ে পটানোর কৌশল love tips

মেয়ে বশীকরন  স্কুলের মেয়ে পটানোর কৌশল love tips

যেভাবে শুরু করবেন আপনার প্রথম প্রেম
১. আপনার কৃষ্ণকলী বাছাই করুন। কৃষ্ণকলির বয়ফ্রেন্ড আছে কিনা, অথবা সম্প্রতি ব্রেকআপ হয়েছে কিনা Google মামুর মত চিপা চাপা থেকে খুজে বের করুন। বয়ফ্রেন্ড বর্তমান এমন কৃষ্ণকলীরে জীবনেও কখনোই ট্রাই মাইরেন না।
সম্প্রতি ব্রেকআপ হইছে এমন কারো সাথে লাইন মারতে গেলে লাইফ পুরাই তামাতামা বানায় দিবো। ব্রেকআপের কমপক্ষে ১ বছর পর ট্রাই করুন যদিও ফ্রেস রিকোমেন্ডেড।

২. খুব উচ্চাভিলাসী কাউরে উমপ্রেস করা সহজ, কিন্তু অভিজ্ঞতা বলে এরা আপনারে ব্যাফুক জ্বালান জ্বালাইবো! বেটার হয় এভারেজ লেভেলের মেয়েদের নির্বাচন করুন। মনে রাখবেন, সঠিক নির্বাচনের উপর নির্ভর করবে আপনার ভবিষ্যত সুখ
২য় পর্যায়ঃ

১. আপনি যদি ভেবে থাকেন কামিং ভ্যালেনটাইনে লাল গোলাপ হাতে কৃষ্ণকলির সামনে দাড়ায়া নাইনটি এইটটির স্টাইলেঃ
-আমি তোমাকে ভালোবাসি, আই লাব ইউ.. তোমারে ছাড়া বাচুম না... /:).....!!!
টাইপ ডায়ালগ দেবেন, তাইরে পুরাই মফিজ হবার লাইন যাইতাছেন। এইটা ব্লাক এন্ড হোয়াইট যুগ না, অফার-প্রোপোজ বহু আগেই ব্যাকডেটেড হয়া গেছে। আপগ্রেডলাইনে চইলা আসেন!

২. প্রথমে পরিচিত হোন, মোবাইলে কথা বলুন, ভদ্রতা লেভেল বজায় রাখুন। মোবাইলের প্রথম কনভারসেশনে লোল ফাইতে শুরু কইরেন না আবার। প্রথমে ঘন ঘন ফোন দেবার অভ্যাস পরিহার করুন। মাঝে মাঝে ফেন্ড্রশিপ টাইপ এসএমএস দিন।
৩. কোনো মেয়ের সামনে খুব ভদ্র, লুতু লুতু বাবু সাজার চেষ্ঠা করবেন না। মেয়েরা সবসময়ই একটু চালু, একটু বদ, ভদ্র ও ইন্টালিজেন্ট টাইপ ছেলেদের পছন্দ করে (এ বিষয়ে এক্স ফ্যাক্টর নাটকে কোনো একটা ডায়ালগ শুনছিলাম, মনে নাই)

৪.আপনি সুন্দর কিনা তার চেয়ে বেশি ইমপর্টেন্ট হচ্ছে আপনি কতটুকু স্মার্ট। সবসময় পরিস্কার থাকুন। কথাবলুন মার্জিত, শুদ্ধ ও ইন্টেলিজেন্টভাবে। আন্চলিকতা পরিহার করুন।

৫. প্রথম কয়েকমাস আপনার কাজ হবে কৃষ্ণকলীর প্রশংসায় নিজেকে উৎসর্গ করা।
তাই বইলাঃ তুমি খুব সুন্দর, ঐশ্ব্যরিয়া তোমার পায়ের ধূলি... :-*:-*
ধরণের ছাগলটাইপ প্রসংশায় যাইয়েন না। ইন্টালিজেন্টভাবে ইনডাইরেক্ট প্রশংসা করুন।
যেমনঃ ... তোমাকে অনেকেই খুব পছন্দ করে দেখি। একজন বললো, তোমারচোখগুলো খুব মায়াবী। কথাটা আসলে ভুল বলেনি।

৬. মাঝে মধ্যেই Good morning, Good Night টাইপ ফরমালম্যাসেজ পাঠান। ম্যাসেজে কোনোভাবেই যেন লুলামী না থাকে। আপনার প্রথম চেষ্ঠা হবে বিশ্বাস স্থাপন। এটি করতে পারলেই আপনি বহুদূর এগিয়ে গেলেন। ফোনে বেশি কথা বলা থেকে বিরত থাকুন। বেফাঁস কথা বলে যেকোনো মূহূর্তেই সব আউলায়া দিতে পারেন। এসএমএস কে প্রাধান্য দিন।

মেয়েদের সোনা

৭. মোটামুটি বন্ধুভাবপন্ন একটা রিলেশন চলে আসলে, আপনার ব্যক্তিগত জীবনের কথা শেয়ার করুন, নেগেটিভ কিছু শেয়ার করতে যাইয়েন না আবার।
মাঝে মাঝে কাল্পনীক কিছু সমস্যা বানিয়ে তার কাছে সমাধান নিন। ভাবখান এমনদেখাবেন যে, তার সমাধান আপনার কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ, সে অনেক ইন্টালিজেন্ট, আপনি তার কথাকে অনেক গুরুত্ব দেন। এসব শেয়ারের মাধ্যমে রিলেশন অনেক গভীর হবে।

মেয়েদের সহজে প্রেমে পটানোর কৌশল love tips

মেয়েদের সহজে প্রেমে পটানোর কৌশল love tips

আপনার উদ্দেশ্য যদি শুধু জীবনে একটি নারীকেপটানো হয় তাহলে ঠিক আছে। তাহলে আপনি পটানোর চেষ্টা করতেই পারেন তাকে যাকে আপনার মন থেকে ভালো লাগে। এর জন্য শিখে নিন মেয়ে পটানোর এই টিপসগুলো :

পছন্দের নারীর জীবনে সুপারম্যানের ভূমিকায় অবতীর্ণ হন
আপনি যদি আপনার পছন্দের নারীকে আকৃষ্ট করতে চান তাহলে তার জীবনের 'সুপার ম্যান' হয়ে যান। অবাক হয়ে গেলেন? সুপার ম্যান হওয়া তেমন কোনো কঠিন বিষয় না। শুধু পছন্দের মানুষটির বিপদে পাশে দাঁড়ালে আর ইচ্ছা অনিচ্ছার দিকে খেয়াল রাখলেই আপনি হতে পারবেন তার সুপার ম্যান।

সবসময় তাঁর কল ও মেসেজের জবাব দিন
আপনারপছন্দের নারীটি যদি আপনাকে খুব শখ করে কল করে কিংবাম্যাসেজ দেয় তাহলে আপনি যত ব্যস্তই থাকুন না কেন চেষ্টা করুন সেগুলোর জবাব দিতে। একবার যদি অবহেলা করে ফেলেন তাহলে আপনার প্রিয় মানুষটির সাথে আপনার দূরত্ববেড়ে যাবে অনেকখানি।

দুঃসময়ে উপদেশ না দিয়ে পাশে থাকুন
আপনার পছন্দের নারীটির জীবনে দুঃসময় চলছে? তাকে অহেতুক উপদেশ বাণী না শুনিয়ে তাকে সঙ্গ দিন। চেষ্টা করুন সব সময় তার পাশে থাকার। তাহলে সে আপনার প্রতি আকৃষ্ট হবে।

নিজের চুলের যত্ন নিন
নারীরা ছেলেদের চুল খুবই ভালোবাসে। সুন্দর ও পরিষ্কার চুল এবং আধুনিক হেয়ার কাট দিয়ে নিজেকে ফিটফাট রাখুন। আপনার পছন্দের নারী খুব সহজেই আপনার প্রতি আকৃষ্টহবেন।

নিজেকে রাখুন দৈহিক ভাবেও আকর্ষণীয়
পছন্দের নারীকে আকর্ষণ করতে চাইলে আপনার দৈহিক গঠনেরদিকে খেয়াল রাখুন। অতিরিক্ত ওজন, খুব কম ওজন কিংবা ভুড়ি আপনার আকর্ষন কমিয়ে দিতে পারে আপনার প্রিয় মানুষটির কাছে। আর তাছাড়া আপনার শারীরিক গঠন সুন্দর হলে আপনাকে যে কোনো পোশাকেই মানিয়ে যাবে। এখনকার নারীরা ছেলেদের ফিগারের ব্যাপারে যথেষ্ট সচেতন। তাই আপনার পছন্দের নারীকে আকর্ষন করতে চাইলে নিজের শারীরিক গঠনের দিকে খেয়াল রাখুন।

মেয়েদের সোনা
পারফিউম ছাড়া চলবে না মোটেই!
নারীরা সব সময়েই সুন্দর ঘ্রান পছন্দ করে। আরতাই একজন নারীকে আকর্ষণ করার সবচাইতে কার্যকরী একটিউপায় হলো রুচিশীল সুন্দর সুগন্ধী ব্যবহার করা। আপনার পছন্দের নারীর আশে পাশে থাকলে অন্তত সুগন্ধী ব্যবহার করার চেষ্টা করুন। এতে সে আপনার প্রতি আকৃষ্ট হবেএবং আপনার প্রতি তার আকর্ষণ সৃষ্টি হবে।

পরিচ্ছন্নতা ও স্মার্টনেসের দিকে খেয়াল রাখুন
পছন্দের নারীটিকে আকর্ষণ করার জন্য সব সময় পরিচ্ছন্নতা ও স্মার্টনেসের দিকে লক্ষ্য রাখুন। নারীরা স্মার্টনেস পছন্দ করেন। বিশেষ করে ক্যাসুয়াল পোশাকে চাইতে ফরমাল পোশাকেই পুরুষদেরকে বেশি পছন্দ করেন নারীরা। তাই পছন্দের নারীর মন পাওয়ার জন্য নিজেকে সব সময় ফিটফাট ও পরিষ্কার রাখার চেষ্টা করুন।